ভারতে আগামী সপ্তাহে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা এক লক্ষ ছাড়াবে

ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ...
অনলাইন ডেস্ক: ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা যে গতিতে বাড়ছে তাতে আগামী ৭ দিনের মধ্যে আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখ ছাড়িয়ে যাবে বলে জানিয়েছেন পরিসংখ্যান বিশেষজ্ঞরা। এই আশঙ্কা সত্যি প্রমাণিত হলে আগামীদিনে ভারতের সামগ্রিক স্বাস্থ্য পরিকাঠামোর উপরে প্রবল চাপ পড়বে বলে মনে করা হচ্ছে।

গত রবি ও সোমবারে ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৩ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের সর্বশেষ পরিসংখ্যান অনুসারে, গত আড়াই দিনের মধ্যেই আক্রান্তের সংখ্যা ৬০ হাজার থেকে ৭০ হাজারে পৌঁছেছে। ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রকের বুলেটিন অনুযায়ী, বুধবার পর্যন্ত দেশে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭৪ হাজার ২৮১। এই মুহূর্তে দেশটির বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪৭,৪৮০ জন। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে শনাক্ত করা হয়েছে ৩ হাজার ৫২৫ জনকে। এই সময়ে মৃত্যু হয়েছে ১২২ জনের।

ফলে এ পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ২৪১৫ জনের। ভারতে সর্বাধিক সক্রিয় আক্রান্তের ঘটনা মহারাষ্ট্রে। সেখানে সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা ১৮,৩৮১ জন। সক্রিয় আক্রান্তের নিরিখে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে তামিলনাড়–, সেখানে করোনা রোগী ৬,৫২৩ জন। তৃতীয় স্থানে থাকা গুজরাটে ৫,১২০ জনের চিকিৎসা চলছে। চতুর্থ স্থানে দিল্লি। সেখানে এই মুহূর্তে ৫,০৪১ জন চিকিৎসাধীন। পঞ্চম স্থানে থাকা মধ্যপ্রদেশে সক্রিয় করোনা রোগী ১,৯০১ জন। এই পাঁচ রাজ্যে রয়েছেন দেশের মোট সক্রিয় করোনা রোগীর ৭৭ শতাংশ।

এদিকে, করোনা সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে রণকৌশলে বদল এনেছে বিভিন্ন দেশ। ব্যতিক্রম নয় ভারতও। এদেশে টেস্ট ভিত্তিক এবং সময় ভিত্তিক কৌশলে বেশ কিছু পরিবর্তন আনা হয়েছে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের যুগ্ম সচিব লভ আগরওয়াল। তিনি বলেছেন, অতি মৃদু, মৃদু ও মাঝারি উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগীদের উপসর্গ দেখা দেয়ার ১০ দিনের মাথায় ছুটি দেওয়া যাবে।

তবে এই ১০ দিনের মধ্যে শেষ তিন দিন জ্বর না-থাকলে তবেই ছুটি পাবেন আক্রান্তরা। বাড়ি ফিরে সাত দিন আইসোলেশনে থাকতে হবে।

-এমজেড

Post a Comment

[blogger]

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget