আল্লামা বাবুনগরী সম্পর্কে আনাস মাদানীর ফোনালাপ ডাহামিথ্যে: জাকারিয়া নোমান ফয়জী


হাটহাজারী মাদরাসার স্বনামধন্য মুহাদ্দিস ও হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব শায়খুল হাদীস আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী সম্পর্কে মাওলানা  আনাস মাদানীর ফোনালাপ ডাহামিথ্যে ও ভূয়া। ধারাবাহিক ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবেই আল্লামা বাবুনগরী সম্পর্কে এমন ডাহামিথ্যে ও ভূয়া অপপ্রচার করছেন আনাস মাদানী।

আজ ২ রা জুলাই বৃহস্পতিবার সংবাদমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে এসব কথা বলেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ হাটহাজারী শাখার সাধারণ সম্পাদক ও মেখল মাদরাসার সিনিয়র শিক্ষক মাওলানা জাকারিয়া নোমান ফয়জী।

তিনি আরো বলেন,আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী একজন বয়োবৃদ্ধ হাদীস বিশারদ হওয়া সত্বেও হেফাজতের জন্য তিনি কারানির্যাতন ভোগ করে রিমান্ডে অমানুষিক নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। শাপলা চত্বরে সেই ভয়াল রাতে নিজের প্রাণের ঝুঁকি নিয়েও তিনি মঞ্চে থেকে লক্ষ লক্ষ  তৌহিদি জনতাকে বুকে আগলে রেখেছেন। নিজের প্রাণ বাচানোর চিন্তা তিনি সেদিন করেননি। আর আজ এতোদিন পর আল্লামা বাবুনগরী শাপলা চত্বরে মানুষকে মার খাইয়িছেন বলে নির্জলা মিথ্যাচার করছেন আনাস মাদানী।

মাওলানা জাকারিয়া নোমান ফয়জী বলেন,মাওলানা আনাস মাদানীর এমন মিথ্যাচারে পুরো জাতি আজ মর্মাহত। তার এই মিথ্যাচার জাতি ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করেছে। আমি এই মিথ্যাচারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। আশা করি,মাওলানা আনাস মাদানী তার এই মিথ্যাচারের জন্য ভুল স্বীকার করে জাতির কাছে মুক্তি চাইবে।

আনাস মাদানীর ফোনালাপে জামাতের সাথে আল্লামা বাবুনগরীর সংশ্লিষ্টতার বিষয়ে জাকারিয়া নোমান ফয়জী বলেন, জামাতের সাথে হেফাজত মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীর নুন্যতম সম্পর্ক বা সংশ্লিষ্টতা নেই। বাবুনগরী সাহেব সব সময় তার লেখনী ও বয়ান বক্তৃতার মধ্যে জামাতের ভ্রান্ত আকিদা সম্পর্কে জাতীকে সচেতন করে আসছেন।এমনকি হাটহাজারী মাদরাসার বার্ষিক মাহফিলে আল্লামা বাবুনগরীর আলোচ্য বিষয়ও ছিলো জামাতের ভ্রান্ত আকিদার অপনোদন। যেই আল্লামা বাবুনগরী পুরোটা জীবন জামাতের ভ্রান্ত মতাদর্শের বিরুদ্ধে জাতিকে সচেতন করে আসছেন তার ব্যাপারে জামাত সংশ্লিষ্টতার মিথ্যা অভিযোগ শুধু ভিত্তিহীনই নয় বরং রীতিমতো হাস্যকর। অর্বাচীন বালকের মতো এসব মিথ্যাচার করে মাওলানা আনাস মাদানী নিজের পায়েই কুড়াল মারছেন।
তিনি আরো বলেন, জামাতে সাথে আল্লামা বাবুনগরীর কোন সংশ্লিষ্টতা নেই মর্মে গত রমজানে হেফাজতের একজন দায়িত্বশীল হিসেবে আমি বাবুনগরীর পক্ষ থেকে ৫০ লক্ষ টাকার চ্যালেঞ্জ করেছিলাম।কিন্তু আজকের দিন পর্যন্ত কেহই জামাতের সাথে বাবুনগরীর সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ দিয়ে আমার চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করতে পারেনি।

মাওলানা জাকারিয়া নোমান ফয়জী বলেন,আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী সম্পর্কে মাওলানা আনাস মাদানীর এই মিথ্যাচার গভীর ষড়যন্ত্র বলে আমি মনে করি। ২০১৩ সালের হেফাজতের অবরোধের সময় কারা সরকারী ও বিরোধী দলের সাথে আঁতাত করে নবীপ্রেমিকদের এই ঈমানি আন্দোলনকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত তা সকলের জানা। তারাই আজ কওমী মাদরাসার ইতিহাস ঐতিহ্য,  অবদানকে ধূলিসাৎ করে দিচ্ছে। তারাই আজ সরকারের পদলেহনে ব্যস্ত। 

গুটি কয়েক চিহ্নিত ষড়যন্ত্রকারী আল্লামা বাবুনগরীর ক্লিন ইমেজকে নষ্ট করতে উঠেপড়ে লেগেছে। তাই দেশবিদেশের হেফাজতের নেতৃবৃন্দ ও শুভাকাঙ্খীরা ষড়যন্ত্রকারীদের মিথ্যাচার, অপপ্রচার থেকে বিরত থাকার আহবান রইলো।

বার্তা প্রেরক

মাওলানা ইমরান শিকদার, প্রচার সম্পাদক হেফাজতে ইসলাম হাটহাজারী উপজেলা

Post a Comment

[blogger]

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget