05/19/20


ভারত উপমহাদেশের অন্যতম ও প্রাচীন দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দারুল উলুম দেওবন্দ মাদরাসার শাইখুল হাদীস আল্লামা মুফতি সাঈদ আহমদ পালনপুরীর ইন্তিকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন,হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ হাটহাজারী উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও 
বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন হাটহাজারী উপজেলা শাখার সভাপতি মাওলানা জাকারিয়া নোমান ফয়জী৷

মাওলানা জাকারিয়া নোমান ফয়জী বলেন:ভারত উপমহাদেশের বিখ্যাত আলেমে দ্বীন 
আল্লামা মুফতি সাঈদ আহমদ পালনপুরী রহ. মঙ্গলবার (১২ মে ) অসুস্থ হয়ে তিনি আইসিইউতে ছিলেন। আজ ১৯ মে মোতাবেক ২৫ রমযান মঙ্গলবার সকালে চাশতের সময় তিনি ইন্তিকাল করেন।

তিনি আরো বলেন, ইলমী অঙ্গনে কঠিন বিষয়কে সহজভাবে উপস্থাপনার জন্য তার বিশেষ প্রসিদ্ধি রয়েছে। তার সামান্য আলোচনায়ও ইলমী বিভা ঝরতে থাকে। তিনি তার শুরু জীবনে ‘ইফাদাতে নানুতবী’ কিতাব রচনার মধ্য দিয়ে আত্মপ্রকাশ করলেও শেষে এসে হিকমাহ তথা দর্শন শাস্ত্রে শাহ ওয়ালী উল্লাহ রহ. এর কালজয়ী কিতাব ‘হুজ্জাতুল্লাহিল বালিগাহ’ এর ব্যাখ্যাগ্রন্থ ‘রহমাতুল্লাহিল ওয়াসিআহ’ আরও অনেক কিতাব লেখেছেন। আমি হযরতের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ রেসালা হুরমতে মোছাহেরাত বাংলা অনুবাদ কর‍তে গিয়ে দেখেছি হযর‍তের অসম্ভব ইলমি গভীরতা, এছাড়া পৃথিবীব্যাপী ছড়িয়ে রয়েছে তাঁর অসংখ্য ছাত্র ও শুভাকাংক্ষী।

তিনি আরো বলেন,আল্লামা মুফতি সাঈদ আহমদ পালনপুরী রহ. ইন্তেকালে দেশবাসী একজন নিবেদিতপ্রাণ দ্বীনের খাদেমকে হারাল৷ইতিহাস তাঁর অমর কীর্তি চিরকাল স্মরণ রাখবে।তাঁর ইন্তেকালে আমি গভীরভাবে শোকাহত।

এসময় তিনি আল্লামা মুফতি সাঈদ আহমদ পালনপুরী রহ. আত্মার মাগফিরাত কামনা ও শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান৷


দারুল উলুম দেওবন্দের শায়খুল হাদীস আল্লামা মুফতী সাঈদ আহমদ পালনপুরীর ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব ও হাটহাজারী মাদরাসার সহযোগী পরিচালক আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী।

আজ ১৯ মে মঙ্গলবার সংবাদমাধ্যমে প্রেরিত এক শোকবার্তায় আল্লামা বাবুনগরী বলেন,আল্লামা পালনপুরী রহ. অনেক উঁচু মাপের একজন আলেম ও বুজুর্গ ব্যক্তি ছিলেন। তিনি ছিলেন ইলমী অঙ্গনের একটি উজ্জল নক্ষত্র,প্রখ্যাত হাদীস বিশারদ। তার দারস-পাঠদান ছিলো অত্যন্ত জনপ্রিয় ও চিত্তাকর্ষক এবং তথ্যপূর্ণ। ইলমী অঙ্গনে কঠিন বিষয়কে সহজভাবে উপস্থাপনার জন্য তার বিশেষ প্রসিদ্ধি রয়েছে। মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত তিনি দেওবন্দের শাইখুল হাদিস পদে সমাসীন ছিলেন। তার ইন্তেকালে  ইলমাকাশের একটি উজ্জ্বল নক্ষত্র ঝরে পড়েছে। তাঁর ইন্তেকালে ইলমী অঙ্গনে যে শূন্যতার সৃষ্টি হয়েছে তা কভু পূরণ হবার নয়। লেখালেখীর ময়দানেও অসাধারণ খেদমত করে গেছেন তিনি। বিভিন্ন বিষয়ে  ছোট বড় প্রায় পঞ্চাশের কাছাক কিতাব রচনা করেছেন তিনি। আমি তাঁর মৃত্যুতে গভীরভাবে শোকাহত।

স্মৃতিচারণ করে আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী বলেন, ১৯৮০ সালে দারুল উলুম দেওবন্দের সদ সালা (শতবার্ষিকী) অনুষ্ঠানে আমার আব্বাজান মেশকাত শরীফের বিশ্ববিখ্যাত ব্যখ্যা গ্রন্থ তানজিমুল আশতাতের রচয়িতা আল্লামা আবুল হাসান রহ. এর সাথে আমিও শরীক হয়েছিলাম। সে সময় তিনি আমার আব্বাজান রহ. এর রচিত তানজিমুল আশতাত কিতাবের খুব বেশী প্রশংসা করেছিলেন। কিতাবটিকে তিনি অনেক পছন্দ করেছিলেন। তাঁর বাসায় আব্বাজান ও আমাকে নিমন্ত্রণ করে অনেক আপ্যায়ন করেছিলেন। তাঁর আতিথেয়তায় আমরা সেদিন মুগ্ধ হয়েছিলাম।

অতপত: আমার স্বরচিত কিতাব ইসলাম আওর সাইন্স এবং আত-তাওহিদ ওয়াশ শিরক ওআকসামুহুমা কিতাব দুটি তার নিকট পাঠিয়েছিলাম। কিতাব দু'টি পাঠ করে তিনি অত্যন্ত মুগ্ধ হয়ে বলেছিলেন-
আমি মনে করতাম জুনায়েদ বাবুনগরী সাহেবের উর্দূ ভাষায় দক্ষতা আছে কিন্তু এখন আরবী ভাষায় লিখিত" আত তাওহিদ ওয়াশ শিরক কিতাবটি পড়ে বুঝতে পারলাম আরবী ভাষায়ও অসাধারণ দক্ষতা ও পাণ্ডিত্য রয়েছে। এবং ইসলাম আওয়ার সাইন্স কিতাবে তিনি অত্যন্ত মূল্যবান তাকরিয
(অভিমতও) লিখেছিলেন। যা প্রকাশ হয়েছে।

স্মৃতিচারণ করে আল্লামা বাবুনগরী আরো বলেন-গত ৪ ঠা আগস্ট ২০১৯ ইংরেজীর রবিবারে আমার মুহতারামাহ আম্মাজান ইন্তেকাল করলে তিনি এ সংবাদ পেয়ে ছাত্রদেরকে নিয়ে একনিষ্ঠভাবে আম্মাজানের জন্য মাগফিরাত ও দারাজাত বুলন্দির জন্য দুআ করেছিলেন।

পরিষেশে আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী মরহুমের শোক সন্তপ্ত পরিবারবর্গের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বলেন, মহান প্রভুর দরবারে আমি দুআ করি, আল্লাহ তাআলা তাঁর সকল দ্বীনি খেদমতকে কবুল করুন এবং ত্রুটি-বিচ্যুতি ক্ষমা করে জান্নাতের সর্বোচ্চ স্থান দান করুন,আমিন।


বিশ্ববিখ্যাত ধর্মীয় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান দারুল উলূম দেওবন্দ, ভারতের স্বনামধন্য শাইখুল হাদীস আল্লামা মুফতী সাঈদ আহমদ পালনপুরী রহ. এর ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন, দারুল উলূম হাটহাজারীর মুহাদ্দিস, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা আশরাফ আলী নিজামপুরী। 

আজ মঙ্গলবার (১৯ মে) এক শোকবার্তায় তি‌নি ব‌লেন, মুসলিম জাহানের খ্যাতিমান আলেমে দ্বীন দারুল উলুম দেওবন্দের শাইখুল হাদীস এবং দারুল উলূম দেওবন্দের আমার সবচেয়ে প্রিয় ও কাছের উস্তাদ শাইখুল হাদীস আল্লামা মুফতী  সাঈদ আহমদ পালনপুরী রহ. আজ সকাল ৭টার দিকে মুম্বাইয়ের একটি হাসপাতালে তিনি ‌ইন্তেকাল করেন! ইন্না-লিল্লাহ...! আল্লামা মুফতী  সাঈদ আহমদ পালনপুরী ও আল্লামা উমর পালনপুরী রহ. এর নাম সেই ছোটকাল থেকে শুনে আসছি। আলহামদুলিল্লাহ!  আমার উভয় হযরতের সান্নিধ্য অর্জনের সৌভাগ্য হয়েছে।

 মাওলানা নিজামপুরী আরো বলেন, বিশ্বের শীর্ষ আলেমদের এভা‌বে চ‌লে যাওয়া খুবই বেদনাদায়ক। ধা‌পে ধা‌পে ইলম ও আমলদার আলেম‌দের উ‌ঠি‌য়ে নেয়ার মাধ্য‌মে মূলত ইলম উ‌ঠিয়ে নেয়া হ‌চ্ছে। হাদীস জগতের উজ্জ্বল নক্ষত্র আমার উস্তাদে মুহতারামের ইন্তেকালে আমি গভীরভাবে শোকাহত। 

মাওলানা আশরাফ আলী নিজামপুরী আরো বলেন, আল্লামা মুফতী সাঈদ আহমদ পালনপুরী রহ. ছিলেন আমার সবচেয়ে শফিক উস্তাদ। দেওবন্দে হযরতের কাছে তিরমিজী ও তহাবী শরীফ পড়ার সৌভাগ্য হয়েছে। তিনি আমাকে খুব স্নেহ করতেন। হযরতের বাড়িতেও আমি যাওয়া আসা-করতাম। আজ হযরত ইন্তেকাল করেছেন। আমি তাঁর রুহের  মাগফিরাত কামনা করছি এবং তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবার, আত্মীয়-স্বজন, ছাত্র, মুরীদ ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি। অাল্লাহ তায়ালা তাঁ‌কে জান্না‌তের স‌র্বোচ্চ স্থান দান করুন। তাঁর খেদমাত‌কে সদকা‌ হি‌সে‌বে জা‌রি রাখুন, অামীন! 

উ‌ল্লেখ্য, বিশ্ব বরেণ্য শাইখুল হাদীস মুফতী  আল্লামা সাঈদ আহমদ পালনপুরী রহ.  ভারতের উত্তর গুজরাটে বেনাস কাঁথা জেলায় ১৩৬২ হি. মোতাবেক ১৯৪২ ইংরেজিতে জন্মগ্রহণ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর।


আরিফ জব্বার 
১. তোমাদের জীবন যেদিকেই যাক, দ্বীনী খেদমতের সাথে সবসময় নিজেকে সম্পৃক্ত রাখবে৷ এ মেরি ওসিয়্যাত হ্যাঁয়৷

২. দিল মে জিহাদ কি তামান্না রাখখো,,

৩. কোনো উস্তাদের ইন্তেকালের সংবাদ শুনলে তাঁর জানাযায় হাজির হবার কৌশিশ করবে৷ যদি সম্ভব না হয় অন্তত তিনবার সুরায়ে ইখলাস পড়ে তাঁর জন্য দোআ করবে৷ 

তাই আমরা যারা হযরতের ছাত্র আছি এবং হযরতের সকল মুহিব্বীনদের নিকট আরজি আমরা সকলেই মুহতারামের নসিহাতের উপর আমল করি, অন্তত তিনবার সুরায়ে ইখলাস পড়ে হযরতের জন্য দোআ করি৷ আল্লাহ তাআলা যেন মুহতারাম উস্তাদকে জান্নাতের সম্মানীত মেহমান হিসেবে কবুল করেন৷ আমিন!


হেফাজত আমীর ও দারুল উলুম হাটহাজারীর মহাপরিচালক ও শাইখুল হাদীস আল্লামা শাহ আহমদ শফী হাফিযাহুল্লাহ সাংবাদ মাধ্যমে প্রেরিত এক শোকবার্তায় উপমহাদেশের অন্যতম ও প্রাচীন দ্বীনি এদারাহ ভারতের দারুল উলুম দেওবন্দের শাইখুল হাদীস আল্লামা মুফতি সাঈদ আহমদ পালনপুরীর ইন্তিকালে গভীর শোক প্রকাশ করেন এবং মরহুমের শোকাহত পরিবার-পরিজন, শাগরেদ-ভক্তদের প্রতি সমবেদনা জানান। তিনি সকলকে সবরে জমিল দান করার জন্য পরম করুনাময় আল্লাহর দরবারে দোআ করেন।
হেফাজত আমীর আল্লামা মুফতি সাঈদ আহমদ পালনপুরী রহ. প্রসঙ্গে বলেন ইলমী অঙ্গনে কঠিন বিষয়কে সহজভাবে উপস্থাপনার জন্য তার বিশেষ প্রসিদ্ধি রয়েছে। তার সামান্য আলোচনায়ও ইলমী বিভা ঝরতে থাকে। তিনি তার শুরু জীবনে ‘ইফাদাতে নানুতবী’ কিতাব রচনার মধ্য দিয়ে আত্মপ্রকাশ করলেও শেষে এসে হিকমাহ তথা দর্শন শাস্ত্রে শাহ ওয়ালী উল্লাহ রহ. এর কালজয়ী কিতাব ‘হুজ্জাতুল্লাহিল বালিগাহ’ এর ব্যাখ্যাগ্রন্থ ‘রহমাতুল্লাহিল ওয়াসিআহ’ লিখে দুনিয়ার আহলে ইলমদের দৃষ্টি কাড়েন। এজন্য দারুল উলুম দেওবন্দের মজলিসে শুরা তাকে রেজুলেশনের মাধ্যমে বিশেষ সম্মানে ভুষিত করেন। এমন শত গুনের অধিকারী দেওবন্দের শাইখুল হাদীস মুফতী সাইদ আহমদ পালনপুরী।

আল্লামা শাহ আহমদ শফী হাফিযাহুল্লাহ স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে বলেন- ২০১৭ সালে আমি যখন চিকিত্‌সার জন্য ভারত গমন করি তখন দারুল উলুম দেওবন্দ কর্তৃপক্ষ ও তাঁর আমন্ত্রণে দারুল উলুম দেওবন্দ গমন করলে তিনি সরাসরি প্রধান তোরণে উপস্থিত হয়ে আমাকে অভ্যার্থনা জানান এবং আতিথিয়তা করেন। তখন দারুল উলুমের শিক্ষক ও ছাত্ররা জানান তিনি কখনো কাউকে এভাবে গিয়ে অভ্যার্থনা জানাননি যা আপনার জন্য করেছেন। সেদিন আমি তাঁর আন্তরিক আতিথিয়তায় মুগ্ধ হয়েছি।

আল্লামা পালনপুরীর মৃত্যুতে মুসলিম উম্মাহ একজন কিংবদন্তী আলেম দ্বীন, দাঈ ও বহু প্রতিবার অধিকারী আলেমকে হারিয়েছেন। তাঁর মৃত্যুতে উম্মাহর যে ক্ষতি হল তা পূরণ হবার নয়। মহান রাব্বুল আলামীন আল্লামা পালনপুরী জান্নাতে উচঁ মকাম দান করুন। আমীন

প্রসঙ্গত- কয়েকদিন যাবত শরীরের অবনতি হতে থাকে। আর আজ চাশতের সময় ইলমি জগতের এ মুকুটহীন সম্রাট লক্ষ লক্ষ ভক্তকুলকে শোক সাগরে ভাসিয়ে চলে যান না ফেরার পথে। 
মুফতি সাঈদ আহমদ পালানপুরী ১৩৬২ হিজরী মোতাবেক ১৯৪২ সালে জন্মগ্রহণ করেন।


বিশ্ববিখ্যাত দ্বীনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান দারুল উলূম দেওবন্দ, ভারতের স্বনামধন্য শাইখুল হাদীস আল্লামা মুফতী সাঈদ আহমদ পালনপুরী সাহেব আজ সকালে ইন্তেকাল করেছেন।
ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।





Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget