Articles by "বিনোদন"


বিনোদন ডেস্ক: মডেল ও অভিনেত্রী সুজানা জাফরের পর আরেক মডেল ও অভিনেত্রী এ্যানি খানও অভিনয় ছাড়ার ঘোষণা দিলেন।

ধর্মকর্মে মনোনিবেশ করতে সপ্তাহ খানেক আগে অভিনয় ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন সুজানা। এরপর এ্যানি খানও ফেইসবুক লাইভে এসে অভিনয় ছাড়ার ঘোষণা দেন।

প্রায় দুই যুগের ক্যারিয়ারের ইতি টানার ঘোষণা দিয়ে শুক্রবার বিকালে ফেইসবুক লাইভে এ্যানি জানান, তিনি কারো দ্বারা প্রভাবিত হয়ে নয়, স্বেচ্ছায় অভিনয় ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। অভিনয় ছাড়লেও এ জগতের মানুষদের প্রতি তার সম্মান থাকবে।

শিশুশিল্পী হিসেবে ক্যারিয়ার শুরুর পর টিভি নাটক ও উপস্থাপনায় নিজের ক্যারিয়ার বিস্তৃত করেছিলেন তিনি।

গত শনিবার সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাই থেকে টেলিফোনে গ্লিটজকে সুজানা তার অভিনয় ছাড়ার সিদ্ধান্তের কথা জানান।

২০১৮ সালের নভেম্বরে ওমরাহ হজ পালনের পর থেকেই অভিনয়ে অনিয়মিত হয়ে পড়েন তিনি। তিনিও ধর্মকর্মেই মনোযোগ দিতে চান; পাশাপাশি বুটিক ব্যবসায় যুক্ত আছেন।

প্রবচন ডেস্ক: দেশের জনপ্রিয় মডেল ও অভিনেত্রী সুজানা জাফর। কয়েক বছর ধরে একজন ব্যবসায়ী হিসেবেও সুপরিচিত তিনি। পাশাপাশি একজন সমাজ সচেতন মানুষ হিসেবেও সমাদৃত।

বছর জুড়েই এতিম ও বৃদ্ধদের জন্য নানারকম উদ্যোগ থাকে তার। করোনা পরিস্থিতিতেও বেশকিছু উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। সম্প্রতি ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা ইউনিয়নের পাড়াগাঁও এলাকার এক বৃদ্ধার দায়িত্ব নিয়েছেন।

এবার নতুন খবর হলো অভিনয় শোবিজ জগত ছেড়ে দেওয়ার ঘোষণা দিলেন লাক্স ফটো-সুন্দরী মডেল ও অভিনেত্রী সুজানা জাফর। শোবিজ ছেলে ধর্মে-কর্মে মন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

২০১৮ সালের নভেম্বরে ওমরাহ হজ পালন করেন সুজানা। গত তিন মাস হোম কোয়ারেন্টাইনে থেকে নিয়মিত কোরআন, হাদিস পড়েছেন। আর ধীরে ধীরে নাকি বদলে গেছে তার মন। এমনটাই জানান তিনি।

সুজানা বলেন, ‘গত ৩ মাসে কোরআন, হাদিস থেকে যা শিখেছি সেখান থেকে আমি যে শান্তি পেয়েছি, তা আগে কখনই পাইনি। আমার মন থেকে মিডিয়ায় কাজের ইচ্ছে নষ্ট হয়ে গেছে। তাই আমি মিডিয়াতে আর কাজ করবো না।’

উল্লেখ্য, ২০০১ সালে মডেলিং এর মাধ্যমে মিডিয়ায় যাত্রা শুরু করেন সুজানা জাফর। ২০০৩ সালে তিনি লাক্স ফটোসুন্দরী খেতাব পান। এরপর অনেক বিজ্ঞাপন, মিউজিক ভিডিও, নাটকে তার দেখা মিলেছে। গত ৩ বছর ধরে মিডিয়াতে অনিয়মিত সুজানা। বর্তমানে বুটিক্স ব্যবসা করছেন।


প্রবচন ডেস্ক: গত কয়েকদিন আগে খবর রটে বলিউড সুপারস্টার আমির খান দিল্লির একটি বস্তি এলাকার অসহায় পরিবারকে আটার ব্যাগের মধ্যে ১৫ হাজার টাকা করে সাহায্য পাঠিয়েছেন। এমন খবর ছড়িয়ে পড়ার পর আমিরের প্রশংসায় মেতে উঠেন অনেকে। ভক্তরা এই তারকার প্রশংসা করতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন।

কিন্তু সব শেষে এটি আমির খানের কাজ নয় বলেই জানালেন তিনি।  কাজটি তার নয় বলে মন্তব্য করে টুইট বার্তায় জানান আমির খান। পাঠানো ব্যক্তি তিনি নন বলেও জানিয়েছেন।

টুইটারে আমির খান লেখেন, আটার ব্যাগের মধ্যে টাকা দেওয়ার মানুষটি আমি নই। হয় এটা সম্পূর্ণ গুজব, নয় তো সেই রবিনহুড নিজের নাম প্রকাশ করতে অনিচ্ছুক। সবাই সুস্থ থাকুন, ভালোবাসা রইলো।

ঘটনাটির সূত্রপাত হয় এক টিকটক ব্যবহারকারীর মাধ্যমে। ওই ব্যক্তি দাবি করেন, আমির খান দিল্লির বস্তি এলাকায় আটার ব্যাগের মধ্যে ১৫ হাজার টাকা পাঠিয়েছেন। মুহূর্তেই বিষয়টি ভাইরাল হয়ে যায়। চলে আসে আলোচনায়।

আমির খান ব্যাগের মধ্যে টাকা না পাঠালেও করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরুর পর ভারতের প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে এবং মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর রিলিফ ফান্ডে বড় অংকের সহায়তা দিয়েছেন। এছাড়া সিনেমার শ্রমিকদের পাশেও দাঁড়িয়েছেন তিনি।

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget